30 C
Dhaka
Sunday, August 1, 2021
প্রচ্ছদএমপিওজিডিপির অনুপাতে শিক্ষায় বরাদ্দ কমছে

জিডিপির অনুপাতে শিক্ষায় বরাদ্দ কমছে

জিডিপির অনুপাতে শিক্ষায় বরাদ্দ জিডিপির ৬ শতাংশ বা বাজেটের ২০ শতাংশ বরাদ্দ পেলে তা আদর্শ বাজেট ধরা হয়। আসছে সামনের এই অর্থবছরে শিক্ষা খাতে টাকার অঙ্ক বরাদ্দ কিছুটা বৃদ্ধি পেলেও আগের তুলনায় জিডিপির অনুপাতে তা শূন্য দশমিক ০৫ শতাংশ পয়েন্ট কমেছে।

‘অর্থনৈতিক উত্তরণ ও ভবিষ্যৎ পথ পরিক্রমা’ শ্লোগানে অর্থমন্ত্রী আ. হ. ম. মুস্তফা কামাল ১১ জুন ২০২০ খ্রি. বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে মোট পাঁচ লাখ ৬৮ হাজার কোটি টাকার বাজেট উপস্থাপন করেছেন।

আরো পড়ুন- শিক্ষকদের উচ্চতর গ্রেড দেয়ার সিদ্ধান্ত

অর্থবছর ২০২০-২১

শিক্ষা ও প্রযুক্তি খাতে বাজেটে বরাদ্দ রাখা হয়েছে ৮৫৭৬২ কোটি টাকা, যা মোট বাজেটের ১৫.১ শতাংশ।

অর্থবছর ২০১৯-২০

শিক্ষা ও প্রযুক্তি খাতে বাজেটে বরাদ্দ রাখা হয়েছে ৭৯৪৮৬ কোটি টাকা, যা মোট বাজেটের ১৫.২ শতাংশ।

তবে আগের ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট সংশোধনে শিক্ষা ও প্রযুক্তি খাতে বরাদ্দ ৭৭০৩৮ কোটিতে নেমে এসেছে। সংশোধিত বাজেটে এই খাতে বরাদ্দের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে মোট বাজেটের প্রায় ১৪.৭২ শতাংশের সমান।

নতুন অর্থবছর ২০২০-২১ এর জন্য প্রস্তাবিত বাজেট টাকার অঙ্কে বাংলাদেশের মোট জিডিপির ১৭ দশমিক ৯ শতাংশের সমান। প্রস্তাবিত বাজেটে জিডিপির আকার ধরা হয়েছে মোট ৩১৭১৮০০ কোটি টাকা।

সেই হিসেবে আসছে অর্থ বছরে শিক্ষা ও প্রযুক্তি খাতে বরাদ্দ জিডিপির ২ দশমিক ৭০ শতাংশের সমান; বিদায়ী অর্থবছরে যা ছিল ২ দশমিক ৭৫ শতাংশ। তার ফলশ্রুতিতে জিডিপির অনুপাতে শিক্ষায় বরাদ্দ কমছে।

আরো পড়ুন- শিক্ষা কর্মকর্তা হতে পারবেন প্রাথমিক শিক্ষকগণ

অর্থমন্ত্রীর বাজেট উপস্থাপনায় শিক্ষাখাতের সবচেয়ে উল্লেখ যোগ্য বিষয় নতুন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিও ভুক্তির বিষয়ে কোনো কিছু না থাকায় বেসরকারি এমপিওভুক্ত শিক্ষকরা অসন্তোষ ও হতাশা প্রকাশ করে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে শিক্ষাবাজেট নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, এমপিওভুক্তি কার্যক্রম একটি চলমান প্রক্রিয়া। প্রত্যেক বছরই যোগ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হয়ে যাবে। আগামী অর্থ বছরেও যোগ্য প্রতিষ্ঠান এমপিও ভুক্ত হবে। নতুন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তি বিষয়ে শিক্ষকরা কোনো অসন্তোষ কিংবা হতাশা প্রকাশ করতে ‘না’ করেছেন তিনি।

উল্যেখ্য যে, এবারের অর্থবছরের বাজেটে শিক্ষার তিন বিভাগ-মন্ত্রণালয়ে (শিক্ষা মন্ত্রনালয়েরমাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ, কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগ এবং প্রাথমিক ও গনশিক্ষা মন্ত্রনালয়) ৬৬৪০০ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করা হয়েছে।

এর মধ্যে ২০২০-২১ অর্থবছরে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের জন্য ৩৩১১৭ কোটি টাকা এবং কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের জন্য ৮৩৪৫ কোটি টাকা বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে। অপরদিকে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জন্য ২৪৯৩৮ কোটি টাকা বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে।

শিক্ষার সকল খবর পেতে Shikkhapedia.com এর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করে যুক্ত থাকুন।

সবসময় রিয়েল টাইম নিউজফিড পেতে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন

2 মন্তব্য সমূহ

মতামত লিখুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য লিখুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন

সর্বশেষ সংবাদ