29 C
Dhaka
Saturday, September 18, 2021
প্রচ্ছদএমপিওশিক্ষকদের উচ্চতর গ্রেড দেয়ার সিদ্ধান্ত

শিক্ষকদের উচ্চতর গ্রেড দেয়ার সিদ্ধান্ত

শিক্ষকদের উচ্চতর গ্রেড দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এমপিওভুক্ত বেসরকারি শিক্ষক কর্মচারীদের উচ্চতরস্কেল নিয়ে সৃষ্ট জটিলতার সমাধান হচ্ছে। এমপিও নীতিমালা অনুযায়ী বেশিকগন চাকরির ১০ বছর পূর্তিতে উচ্চতর গ্রেড পাবেন। তবে, উচ্চতর গ্রেড/টাইম স্কেল নিয়ে সরকারি কর্মচারীদের করা একটি মামলা চলমান অবস্থায় থাকায় চাকরির ১৬ বছর পুর্তিতে দ্বিতীয় উচ্চতর গ্রেড প্রাপ্তির বিষয়টি আটকেই রইলো। সম্প্রতি বিষয়টি স্পষ্ট করে একটি চিঠি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছে অর্থ মন্ত্রণালয়

এর আগে গত বছর ২৪ নভেম্বর ২০১৯ খ্রি. মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক প্রফেসর ড. মো. গোলাম ফারুকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এমপিও কমিটির সভায় উচ্চতর গ্রেডের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল। এরপর বলা হয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা পেলেই টাইমস্কেলের বদলে বেসরকারি স্কুল-কলেজ শিক্ষক-কর্মচারীদের উচ্চতর গ্রেডের আবেদন গ্রহণ শুরু হবে।

আরো পড়ুন- জিডিপির অনুপাতে শিক্ষায় বরাদ্দ কমছে

অবশেষে টাইম স্কেলের বদলে বেসরকারি এমপিওভুক্ত স্কুল-কলেজ ও মাদরাসার শিক্ষকদের উচ্চতর গ্রেড দেয়ার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। চাকরির ১০ বছর পূর্তি হলে উচ্চতর গ্রেড দেয়ার বিষয়ে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়ার জন্য মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরকে রোববার নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

দীর্ঘদিন টাইম স্কেল/উচ্চতর গ্রেড আটকে থাকার পর গত ৩১ মে বিষয়টি স্পষ্ট করে একটি চিঠি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছে অর্থ মন্ত্রণালয়। স্পষ্টীকরণ চিঠির প্রেক্ষিতে শিক্ষকদের চাকরির ১০ বছর পূর্তিতে উচ্চতর গ্রেডের বিষয়ে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়ার জন্য মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতর কে নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

৭ জুন রোববার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মোমিনুর রশিদ আমিন বলেন, দীর্ঘদিন ধরে বেসরকারি শিক্ষকদের উচ্চতর গ্রেড প্রাপ্তির বিষয়টি আটকে ছিল। বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্কুল ও কলেজের এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের উচ্চতর স্কেল প্রদানের বিষয়ে অর্থ বিভাগের স্মারকে স্পষ্টীকরণসহ এক চিঠিতে মতামত প্রদান করা হয়েছে এবং অর্থ মন্ত্রণালয়কে এ বিষয়ে পরবর্তী প্রয়ােজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য অনুরােধ করা হয়েছে।

আরো পড়ুন- উন্নত বিশ্বের শিক্ষা ব্যবস্থার ভিন্নতা

স্পষ্টীকরণ এর ব্যাখ্যায় তিনি বলেন, চাকরি ১০ বছর পূর্তিতে শিক্ষকরা একটি উচ্চতর গ্রেড পাবেন। তবে, আদালতে মামলা থাকায় ১৬ বছর পূর্তিতে উচ্চতর গ্রেড পাবেন কি-না বা দ্বিতীয় উচ্চতর গ্রেড শিক্ষকরা কবে পাবেন তা আদালত নির্ধারণ করবেন।

নতুন ২০১৮ সালের এমপিও নীতিমালার ১০ বছর পূর্তি এবং ১৬ বছর পূর্তিতে উচ্চতর গ্রেড দেয়ার কথা ছিল। তবে বিষয়টি নিয়ে কিছু জটিলতা থাকায় গত মার্চ মাসে অর্থ মন্ত্রণালয়ের কাছে বিষয়টির স্পষ্টীকরণ চেয়ে চিঠি দেয় শিক্ষা মন্ত্রনালয়। গত ৩১ মে বিষয়টি স্পষ্ট করে চিঠি পাঠিয়েছে অর্থ মন্ত্রণালয়। চিঠিতে অর্থ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, চাকরির ১০ বছর পূর্তিতে শিক্ষকরা জাতীয় বেতন স্কেল অনুযায়ী উচ্চতর স্কেল পাবেন। তবে, চাকরি ১৬ বছর পূর্তিতে শিক্ষকদের উচ্চতর স্কেল প্রাপ্তির নিয়ে সরকারি কর্মচারিদের করা একটি মামলা আদালতে চলমান আছে। তাই এ বিষয়ে তাদের কিছুই করার নেই।

এমপিও নীতিমালায় টাইম স্কেলের পরিবর্তে উচ্চতর বেতন স্কেলের কথা বলা হয়েছে। ২০১৫ সালের যে পে-স্কেল সেই পে-স্কেলেই টাইম স্কেলকে বাদ দিয়ে উচ্চতর গ্রেড করা হয়েছে। ২০১৮ সালের যে এমপিও নীতিমালা, সেখানে উচ্চতর বেতন স্কেল হিসেবেই এটা ধরা আছে। টাইম স্কেলের নিয়মেই ‘উচ্চতর গ্রেড’ পাবেন বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীরা।

শিক্ষার সকল খবর পেতে Shikkhapedia.com এর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করে যুক্ত থাকুন।

সবসময় রিয়েল টাইম নিউজফিড পেতে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন

Subscribe

মতামত লিখুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য লিখুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন

সর্বশেষ সংবাদ